১০ নভেম্বর বিপ্লবী লারমার ৩৩তম মৃত্যুবার্ষিকী

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ৯ নভেম্বর, ঢাকা।
১০নভেম্বর বৃহস্পতিবার ২০১৬ শ্রমজীবী জনতা ও সাবেক আইন প্রণেতা মানবেন্দ্র নারয়ণ লারমার ৩৩তম মৃত্যুবাষির্কী। ১৯৮৩ সালের ১০ নভেম্বর প্রতিক্রিয়াশীল ঘাতকদের বুলেটে ৮ সহযোদ্ধাসহ তিনি নিহত হন।
মানবেন্দ্র নারায়ণ লারমার জন্ম ১৯৩৯ সালেন ১৫ সেপ্টেম্বর। বর্তমান রাঙ্গামাটি জেলা সদরের অদূরে মাওরুম নামক এক সমৃদ্ধ জনপদে। কাপ্তাই বাঁধের অতই জলরাশিতে সে গ্রামটি তলিয়ে গেছে অনেক আগেই। মানবেন্দ্র নারায়ণ লারমা স্বাধীন বাংলাদেশের সংবিধান প্রণয়নের প্রাক্কালে শ্রমজীবী মেহনতি জনতা, নারীর মর্যাদা ও দেশের আপরাপর জাতিসমূহের স্ব-শাসনের বিষয়ে সোচ্চার ছিলেন। কিন্তু তৎকালীন শাসকগোষ্ঠীর জাতিগত অহমিকা ও ধনবাদী শ্রেণি চরিত্রের কারণে লারমার সেই কাংখিত সংবিধান থেকে বাংলাদেশ বঞ্চিত হয়। সংখ্যাগরিষ্ঠতার দাপটে মানবেন্দ্র লারমার আকাঙ্খা সংবিধানে স্থান পায়নি।
জাতীয় পর্যায়ে এই মহান নেতাকে স্মরণ ও শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য কবি মুহাম্মদ সামাদকে আহ্বায়ক, রোবায়েত ফেরদৌস. ঈষানী চ্‌ক্রবর্তী ও সঞ্জীব দ্রং-কে যুগ্ম আহ্বায়ক এবং দীপায়ন খীসাকে সদস্য সচিব করে একটি জাতীয় কমিটি গঠন করা হয়েছে। দেশের বরেণ্য ব্যক্তিবর্গ, মানবাধিকার কর্মী, শিক্ষক, সাংবাদিক, আইনজীবী এই কমিটির সদস্য। জাতীয় কমিটি ১০ নভেম্বর বৃহস্পতিবার বিকাল ৩টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় স্বোপার্জিত স্বাধীনতা চত্বরে মহান এই বিপ্লবীকে শ্রদ্ধা নিবেদন করবে। জাতীয় রাজনৈতিক দল, সামাজিক সংগঠন ও বিভিন্ন পেশাজীবীরা এই শ্রদ্ধা নিবেদনে অংশ নেবেন।
৩ পার্বত্য জেলার প্রতিটি জনপদে প্রভাত ফেরী, প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন, স্মরণ সভা, প্রদীপ প্রজ্জ্বলন ও ফানুস উড়ানোর মাধ্যমে প্রিয় নেতাকে স্মরণ করা হবে। দেশের অন্যান্য অঞ্চলেও বিভিন্ন সামাজিক ও রাজনৈতিক সংগঠন মানবেন্দ্র নারায়ণ লারমাকে শ্রদ্ধা নিবেদনের কর্মসূচী গ্রহণ করেছে।
উল্লেখ্য মৃত্যুর ৩৩ বছর পর দশম জাতীয় সংসদের দ্বাদশ অধিবেশনে ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৬ মানবেন্দ্র নারায়ণ লারমার জন্য শোক প্রস্তাব গৃহীত হয়। নিয়ম অনুসারে কোন আইন প্রণেতা মৃত্যর পরই সংসদে শোক প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়। কিন্ত্র অজ্ঞাত কারণে মানবেন্দ্র নারায়ণ লারমার জন্য ৩৩ বছর সংসদে কোন শোক প্রস্তাব উত্থাপন করা হয়নি। রাঙ্গামটি জেলার সাংসদ ঊষাতন তালুকদার বিষয়টি জাতীয় সংসদের দৃষ্টিগোচর করেন। তারপরই জাতীয় সংসদ দীর্ঘ ৩৩ বছর পর সংসদে শোক প্রস্তাব গ্রহণ করে।
নিপীড়িত জতিসমূহ ও শ্রমজীবী মানুষের প্রিয় নেতার ৩৩তম মৃত্যুবার্ষিকীতে আইপিনিউজ-এর সশ্রদ্ধ সালাম ও গভীর ভালবাসা।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *