দুর্যোগ ব্যবস্থাপনার সব কর্মকর্তা-কর্মচারীর ছুটি বাতিল

ঘূর্ণিঝড় ফণী ঘনীভূত হয়ে বাংলাদেশের দিকে এগিয়ে আসছে। বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতরের বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ফণী আরও ঘনীভূত হয়ে অতিপ্রবল ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয়েছে। বর্তমানে ঝড়টি দক্ষিণ-পশ্চিম ও দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগর এলাকায় অবস্থান করছে। এ অবস্থায় উপকূলীয় জেলাগুলোর ত্রাণ ও পুনর্বাসন কার্যক্রম সমন্বয় ও জরুরি সাড়া দেওয়ার জন্য দুর্যোগ ব্যবস্থাপনার সব কর্মকর্তা-কর্মচারীর ছুটি বাতিল করা হয়েছে। বুধবার (১ মে) থেকে তাদের নিরবচ্ছিন্নভাবে নিজ নিজ স্টেশনে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

ঝড়ের কারণে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদফতরের সব শাখাও বুধবার থেকে যথারীতি খোলা থাকবে। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদফতরের উপ-পরিচালক (প্রশাসন-১) উপসচিব লুৎফুন নাহার স্বাক্ষরিত এক নোটিশে এসব তথ্য জানানো হয়।

ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি কর্মসূচির (সিপিপি) সদস্য সচিব আহমাদুল হক স্বাক্ষরিত এক নোটিশে আরও জানানো হয়, ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলায় আগাম প্রস্তুতিমূলক কার্যক্রম গ্রহণের জন্য বিকাল চারটায় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো. শাহ কামালের সভাপতিত্বে ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি কর্মসূচি (সিপিপি) বাস্তবায়ন বোর্ডের জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হবে।

এছাড়া জরুরি সাড়াদান কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ হাফিজুর রহমান জানান, ঘূর্ণিঝড় ফণীর জন্য আলাদা কোনও কন্ট্রোল রুম খোলা হয়নি তবে অধিদফতরের কন্ট্রোল রুম ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকবে। ঘূর্ণিঝড় ফণীর জন্য কন্ট্রোল রুমে আরও লোক বসানো হয়েছে।

মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব (প্রশাসন) মোমেনা খাতুন স্বাক্ষরিত এক নোটিশে ফণীর গতিপথ সংক্রান্ত তথ্য আদান-প্রদান ও সম্ভাব্য পূর্ব প্রস্তুতি গ্রহণের জন্য দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় সম্মেলন কক্ষসহ অফিস খোলা রাখার কথা বলা হয়েছে। ১,৩ ও ৪ মে সকাল ৯টা থেকে এ মন্ত্রণালয়ের কলাপসিবল গেটসহ অফিস কক্ষ এবং সম্মেলন কক্ষ খোলা রাখার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *