আলীকদমের চেয়ারম্যান কর্তৃক ম্রো নারীর শ্লীলতাহানির প্রতিবাদের ঢাকায় মানববন্ধন

সতেজ চাকমা: গত ২৩ শে মার্চ বান্দরবানের আলীকদম উপজেলার নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান আবুল কালাম কর্তৃক এক ম্রো নারীকে জোড়পূর্বক জড়িয়ে ধরে শ্লীলতাহানি এবং এই ঘটনায় নাটকীয় সংবাদ সম্মেলনের প্রতিবাদে এবং দায়ী চেয়ারম্যানের শাস্তির দাবীতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাষ্কর্যে প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করেছে ঢাকাস্থ ম্রো শিক্ষার্থীবৃন্দ। আজ বিকাল ৪ ঘটিকায় অনুষ্ঠিত এই প্রতিবাদ সমাবেশে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাধ বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী দনওয়াই ম্রোর সঞ্চালনায় এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের সিনিয়র শিক্ষার্থী কাইংপা ম্রোর সভাপতিত্বে সমাবেশে স্বাগত বক্তব্য রাখেন পংরাও ম্রো। স্বাগত বক্তব্যে তিনি এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানান এবং সেই সাথে জড়িত চেয়ারম্যান আবুল কালামের শাস্তির দাবী জানান।

এছাড়া সমাবেশে সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন, পাহাড়ী ছাত্র পরিষদের ঢাকা মহানগরের সভাপতি নিপন ত্রিপুরা, ডাকসুর সদস্য তানভীর হাসান সৈকত, ঢাবি ছাত্র ইউনিয়নের রাগীব নাঈম, বাংলাদেশ মারমা স্টুডেন্টস কাউন্সিলের ঢাকা মহানগর শাখার সহ-সভাপতি পাইমং মারমা।

বক্তারা বলেন, পাহাড়ের নারীদের স্বভাবজাতভাবে সহজ-সরল । এই সরলতার সুযোগ নিয়ে এই আবুল কালামরা পাহাড়ী নারীদের পণ্য হিসাবে মনে করে এবং জোড়পূর্বক শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে। এই ধরণের ঘৃণ্য দৃষ্টিভঙ্গি পোষণকারীরাই পাহাড়ে সবিতা, তুমাসিং, বলিমিলাদেরকে ধর্ষণের মত ঘটনা ঘটিয়েছে। বক্তারা অবিলম্বে ঘটনার সাথে দায়ী চেয়ারম্যান আবুল কালামের গ্রেফতারপূর্বক শাস্তির জোড় দাবী জানান।

বিগত ২৩ মার্চ আলিকদমের ৩ নং নয়াপাড়া ইউনিয়নের মেরিনচর ম্রো পাড়ায় নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান আবুল কালামকে স্থানীয় ম্রো’রা সংবর্ধনা দেয়। এই সংবর্ধনায় এক ম্রো নারী তাকে ফুলের মালা পরাতে গেলে তাকে জোড়পূর্বক জড়িয়ে ধরে । এতে ম্রো নারীর অস্বস্তিকর অবস্থার বিভিন্ন ছবি ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে যায়। এ ঘটনায় অভিযুক্ত চেয়ারম্যানকে নির্দোষ দাবী করে ঐ নারীকে নিয়ে মিথ্যা,বানোয়াট এক নাটকীয় সংবাদ সম্মেলনেরও আয়োজন করা হয়।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *