সংসদীয় ককাসের কাছে শ্রীমঙ্গলের আদিবাসীদের ভূমি দখলের অভিযোগ

প্রভাবশালীদের কর্তৃক ভূমি দখলের বিরুদ্ধে আদিবাসী ও সংখ্যালঘু বিষয়ক সংসদীয় ককাসের কাছে অভিযোগ করেছেন মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলার দত্তগ্রামের বাসিন্দারা।

২০ মার্চ বুধবার আদিবাসী ও সংখ্যালঘু বিষয়ক সংসদীয় ককাসের আহ্বায়ক ফজলে হোসেন বাদশার নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল দত্তগ্রামের যান। এসময় ভুক্তভোগীরা তাদের কাছে অভিযোগ তুলে ধরেন।

অভিযোগে গ্রামবাসীরা বলেন, স্থানীয় চাবাগানের এক মালিক দীর্ঘদিন ধরেই তাদের সম্পত্তি দখলের অপচেষ্টা চালাচ্ছে। হুমকি, হামলা, এমনকি গাছ কাটা ও স্থাপনা গুড়িয়ে দেয়ার মতো ঘটনাও তার বাহিনি ঘটিয়েছে। নিম্ন ও উচ্চ আদালতের নিষেধাজ্ঞা থাকার পরেও স্থানীয় সেই চা বাগান মালিক একই ঘটনা ঘটিয়ে চলেছে। সে কারণে আদিবাসীসহ দরিদ্র জনগোষ্ঠীর ওই এলাকায় টিকে থাকাই দায় হয়ে উঠেছে।

সংসদীয় ককাসের সদস্যদের কাছে এসময় নিজের অভিজ্ঞতা তুলে ধরেন ফাদার জেমস কিরণ রোজারিও। তিনি জানান, স্থানীয় আদিবাসী ও দরিদ্র জনগোষ্ঠীর শিক্ষার লক্ষ্যে তিনি সেখানে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক পাঠাগার গড়ে তোলেন। সেই পাঠাগারটিও ভূমি দখলকারী চক্রটি ভেঙে গুড়িয়ে দিয়েছে বলে অভিযোগ করেন ফাদার জেমস।

সংসদীয় ককাসের সদস্যরা অভিযোগ সবিস্তার শুনে এ বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সরকারের যথাযথ কর্তৃপক্ষকে অবহিত করার আশ্বাস দেন। আহ্বায়ক বাদশা ছাড়াও প্রতিনিধি দলে অন্যান্যদের মধ্যে ছিলেন সংসদ সদস্য গ্লোরিয়া সরকার ঝরণা, অধ্যাপক মেসবাহ কামাল, জান্নাতে ফেরদৌসী, কাজল দেবনাথ প্রমুখ।

ককাসের আহ্বায়ক ফজলে হোসেন বাদশা এমপি এ বিষয়ে সাংবাদিকদের জানান, “আমরা অভিযোগগুলো অবগত হয়েছি। কাল (বৃহস্পতিবার) সকালে স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে আমরা এ নিয়ে বৈঠক করবো। ঢাকায় ফিরে বিষয়টি নিয়ে ভূমি মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে বৈঠক করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।”

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *