বাঘাইছড়িতে ভোটবর্জন এবং পুননির্বাচনের দাবি

রাঙ্গামাটি জেলার বাঘাইছড়ি উপজেলার নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থীগণ। বড়ঋষি চাকমা, চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী (দোয়াত-কলম), সুমিতা চাকমা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী (প্রজাপতি) সমীরণ চাকমা, ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী (বই) প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় অংশগ্রহণ করেন। সংবাদ মাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তারা নির্বাচনে অনিয়মের অভিযোগ এনে ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন। সেই সাথে তারা পুননির্বাচনেরও দাবী জানান।

বিবৃতিতে ৩ প্রার্থী অভিযোগ করেন,ক্ষমতাসীন আওয়ামীলীগ ও তাতিন্দ্র-সুদর্শন নেতৃত্বাধীন সংস্কারপন্থী জেএসএস সন্ত্রাসী কর্তৃক গত রাতে অন্তত চারটি কেন্দ্রে অবৈধভাবে ব্যালট বাক্সে ব্যাপক ব্যালট পেপার ভরতি, আজ ভোট গ্রহণের সময় ভোটারদের ভোট কেন্দ্রে যেতে বাধা প্রদান, প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের পোলিং এজেন্টদের ভোট কেন্দ্রে ঢুকতে না দেয়াসহ ভোট কেন্দ্র দখল করে নজিরবিহীন ভোট ডাকাতির প্রতিবাদে ভোট বর্জন ঘোষণা করছি। সেই সাথে অনতি বিলম্বে বাঘাইছড়ি উপজেলা পরিষদের ভোট গ্্রহণ স্থগিত করে পুননির্বাচনের জোর দাবি জানাচ্ছি।

বিবৃতিতে ৩ প্রার্থী আরো বলেন, গত রাতে রাতের আঁধারে উলুছড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র, খেদারমারা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র, বাঘাইহাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র, করেঙ্গাতলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র- এই চারটি ভোট কেন্দ্রসহ বেশকয়েকটি কেন্দ্রে প্রশাসন, আইন-শৃঙ্খলা ও নিরাপত্তাবাহিনীর সহযোগিতায় ক্ষমতাসীন আওয়ামীলীগ ও সংস্কারপন্থীদের সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী সুদর্শন চাকমার সন্ত্রাসীরা ব্যালট বক্সে ব্যাপক ব্যালট ভরে রাখে। আজ সকাল ৮:০০ ঘটিকা থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হলে পৌরসভার ৭টি কেন্দ্র, রূপাকারী ইউনিয়নের অন্তর্গত ৩টি কেন্দ্র, খেদারমারা ইউনিয়নের ৩টি কেন্দ্রসহ আরো কমপক্ষে ১৮টি ভোট কেন্দ্রে আওয়ামীলীগ ও তাতিন্দ্র-সুদর্শন নেতৃত্বাধীন সংস্কারপন্থীদের সন্ত্রাসীরা ভোটারদের ভোট কেন্দ্রে যেতে বাধা দিয়ে চলেছে। ভোট কেন্দ্রে নিয়োজিত নিরাপত্তাবাহিনীর সদস্যরাও বিভিন্ন অজুহাত দেখিয়ে ভোটারদের ভোট কেন্দ্রে যেতে বাধা দিচ্ছে এবং ভোট না দিয়ে চলে যেতে ভোটারদের নির্দেশ প্রদান করছে।

সংবাদ মাধ্যমে পাঠানো বিবৃতিতে ৩ প্রার্থী বলেন, এই পরিস্থিতিতে আমরা বাঘাইছড়ি উপজেলা পরিষদের চলমান নির্বাচন বর্জন করছি। প্রার্থীগণ অনতিবিলম্বে বাঘাইছড়ি উপজেলা পরিষদের ভোটগ্রহণ স্থগিত করা ও নির্বাচন স্থগিতপ ূর্বক পুনরায় বাঘাইছড়ি উপজেলা পরিষদের নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠিত করার জোর দাবী জানান। সেই সাথে কেন্দ্র দখল করে নজিরবিহীন ভোট ডাকাতির নির্বাচন বাতিল করানা হলে বাঘাইছড়ি উপজেলায় যে কোন অনাকাক্সিক্ষত পরিস্থিতির জন্য নির্বাচন কমিশন ও সরকারই দায়ি থাকবে বলে তারা হুশিয়ারী উচ্চারণ করেন।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *