ডাকসু নির্বাচনে বিভিন্ন পদে লড়ছেন আদিবাসী শিক্ষার্থীরা

সতেজ চাকমা: বিগত ২৯ বছর ধরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে না। অবশেষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ডাকসু নির্বাচন অনুষ্ঠানের আয়োজন করতে যাচ্ছে আগামী ১১ মার্চ। এই নির্বাচনকে সামনে রেখে ক্যাম্পাসে ক্রিয়াশীল বিভিন্ন ছাত্র সংগঠন নিজেদের প্যানেলকে জিতানোর জন্য ইতোমধ্যেই প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে। সাধারণ শিক্ষার্থীদের কাছে গিয়ে নিজেদের অঙ্গীকারের কথা বলছে। এমনকি সাধারণ শিক্ষার্থীদের মধ্যে এ আলাপও শোনা যাচ্ছে যে, যেসব ছাত্রনেতারা আগে হুমকিয়ে,ধামকিয়ে বিভিন্ন গালির সুরে কথা বলতেন তারা এখন সাধারণ শিক্ষার্থীদের কাছে খুব আপন সহোদর। ছাত্রলীগ, ছাত্রদল, ছাত্র ইউনিয়ন,ছাত্র ফেডারেশন, ছাত্র মৈত্রী, সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট সহ বিভিন্ন ছাত্র সংগঠন এবং স্বতন্ত্রভাবেও অনেক শিক্ষার্থী এককভাবে কিংবা জোটবদ্ধভাবে নির্বাচনে অংশগ্রহন করছে। এদের মধ্যে বিভিন্ন পদে কয়েকজন আদিবাসী শিক্ষার্থীও লড়ছেন কেন্দ্রীয় সংসদ ও হল সংসদে। এদের মধ্যে কেন্দ্রীয় সংসদে ক্রিড়া সম্পাদক পদে লড়ছেন বাংলাদেশের প্রথম প্রো-বক্সার, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ের পেশাদার বক্সার, পাহাড়ের কৃতি সন্তান সুরকৃষ্ণ চাকমা।


তিনি ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের মাষ্টার্সের শিক্ষার্থী। ২০১৩ ও ১৪ সালে জাতীয় বক্সিং চ্যাম্পিয়ন এবং রিও অলিম্পিকের স্কলারশিপপ্রাপ্ত এই বক্সার ইংল্যান্ড ও ভারত থেকে দীর্ঘমেয়াদী প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফুটবল ও অ্যাটলেটিকস্ টিমের অন্যতম এ খেলোয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন নানা অঙ্গীকার নিয়ে। অন্যদিকে কেন্দ্রীয় সংসদে সাংস্কৃতিক সম্পাদক পদে লড়ছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় জুম লিটরেচার এন্ড কালচারাল সোসাইটির সভাপতি এবং ইংরেজী বিভাগের মাষ্টার্সের শিক্ষার্থী কিংশুক চাকমা।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *