নির্বাচনে ভোট পড়েছে ৩১.০৫ শতাংশ

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) মেয়র উপনির্বাচনে ভোট পড়েছে ৩১.০৫ শতাংশ। যা সংখ্যায় ৯ লাখ ২৩ হাজার ২৬ ভোট। এর মধ্যে বিভিন্ন কারণে ১৯ হাজার ৫১৩টি বাতিল করা হয়েছে। এক হাজার ২৯৫টি কেন্দ্রের মধ্যে কোনও কেন্দ্রেরই ভোট স্থগিত হয়নি। ডিএনসিসির ভোটার সংখ্যা ৩০ লাখ ৩৫ হাজার ৬২১ জন।

এর আগে নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছিলেন,‘ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে মেয়র পদে উপ-নির্বাচন ও দুই সিটির (উত্তর ও দক্ষিণ) সম্প্রসারিত অংশে কাউন্সিলর পদে নির্বাচনে সব মিলিয়ে ৫০ শতাংশের মতো ভোট পড়তে পারে।’

নির্বাচনে ৮ লাখ ৩৯ হাজার ৩০২ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী মো. আতিকুল ইসলাম। এক হাজার ২৯৫টি কেন্দ্রে মোট ভোট পড়েছে ৯ লাখ ৪২ হাজার ৫৩৯টি। এই ভোটের আট ভাগের এক ভাগ এককভাবে না পাওয়ায় জামানত হারিয়েছেন মো. শাফিন আহমেদ, মো. আনিসুর রহমান দেওয়ান, মো. আব্দুর রহিম ও শাহীন খান। তারা যথাক্রমে জাতীয় পার্টি, ন্যাশনাল পিপলস পার্টি, স্বতন্ত্র ও পিপলস ডেমোক্র্যাটিক পার্টির (পিডিপি) হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

জামানত রক্ষার জন্য একজন মেয়র প্রার্থীকে পেতে হতো এক লাখ ১৭ হাজার ৮১৭ ভোট। জাতীয় পার্টির প্রার্থী মো. শাফিন আহমেদ পেয়েছেন ৫২ হাজার ৪২৯ ভোট, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির মো. আনিসুর রহমান দেওয়ান পেয়েছেন ৮ হাজার ৬৯৫ ভোট (আম প্রতীক নিয়ে), স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আব্দুর রহিম টেবিল ঘড়ি প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ১৪ হাজার ৪০ ভোট এবং পিপলস ডেমোক্র্যাটিক পার্টির (পিডিপি) শাহীন খান পেয়েছেন ৮ হাজার ৫৬০ ভোট। তার প্রতীক ছিল বাঘ। বিজয়ী আতিকুল ছাড়া বাকি চার মেয়র প্রার্থীরই জামানত বাতিল হয়েছে।

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের ৩০ নভেম্বর ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আনিসুল হক মারা যান। এতে পদটি শূন্য হয়ে যায়। ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারিতে মেয়র পদে উপনির্বাচনের জন্য নির্বাচন কমিশন তফসিল ঘোষণা করে। তবে সম্প্রসারিত ওয়ার্ডগুলোর সীমানা নির্ধারণ জটিলতার কারণে উত্তর ও দক্ষিণের সংক্ষুব্ধ দুই ব্যক্তি এ বিষয়ে হাইকোর্টে রিট করায় নির্বাচন পিছিয়ে যায়। এই রিট জটিলতার সমাধান হওয়ায় ঢাকা উত্তরের মেয়র পদে উপনির্বাচন এবং উত্তর ও দক্ষিণের সম্প্রসারিত ৩৬টি ওয়ার্ডে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলো। এ ছাড়া ২১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলরের মৃত্যু হওয়ায় সেখানেও বৃহস্পতিবার উপনির্বাচন হলো।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *