সোশ্যাল মিডিয়া আইপিনিউজ-

মিহির ঘোষসহ আটককৃত নেতৃবৃন্দের নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে মশাল মিছিল

মিথ্যা মামলায় আটককৃত সিপিবির প্রেসিডিয়াম সদস্য মিহির ঘোষ, সাদেকুল ইসলামসহ সকল নেতাকর্মীদের নিঃশর্ত মুক্তি এবং গণবিরোধী ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবিতে প্রগতিশীল গণসংগঠনসমূহের উদ্যোগে গতকাল ১১ ফেব্রুয়ারি, ২০২২ বিকাল ৫ টায় রাজধানীর পুরানা পল্টন মোড় বিক্ষোভ সমাবেশ এবং সমাবেশ পরবর্তী মশাল মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

বাংলাদেশ ক্ষেতমজুর সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ডাঃ এস এম ফজলুর রহমানের সভাপতিত্বে এবং বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক দীপক শীলের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন কৃষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক কাজী সাজ্জাদ জহির চন্দন, ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি মোঃ ফয়েজউল্লাহ, যুব ইউনিয়নের সভাপতি হাফিজ আদনান রিয়াদ, ক্ষেতমজুর সমিতির সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. আনোয়ার হোসেন রেজা, বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সহ-সভাপতি মাহবুবুল আলম, গার্মেন্টস শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়নের সভাপতি মন্টু ঘোষ, উদীচী শিল্পীগোষ্ঠীর সাধারণ সম্পাদক জামশেদ আনোয়ার তপন, ইঞ্জিনিয়ার্স এ্যান্ড আর্কিটেক্ট ফর এনভায়রনমেন্ট এন্ড ডেভলপমেন্টের সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী রাশেদুল হাসান রিপন, হকার্স ইউনিয়নের সভাপতি আব্দুল হাশিম কবীর, রিক্সা-ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কুদ্দুস।

সমাবেশে বক্তারা বলেন,”স্বাধীনতার ৫০ বছরে এসেও দেশের জনগণকে গণবিরোধী ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে আটক, নির্যাতন ও হয়রানি করা অত্যন্ত লজ্জাজনক। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাংলাদেশের স্বাধীনতা এবং সংবিধান পরিপন্থী। কমরেড মিহির ঘোষসহ আটককৃত অন্যান্য নেতৃবৃন্দের নামে দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা অবিলম্বে প্রত্যাহার করে তাদের নিঃশর্ত মুক্তি দিতে হবে। একই সাথে এই গণবিরোধী ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল করে সকল রাজবন্দীদের মুক্তি দিতে হবে।

সভাপতির বক্তব্যে অধ্যাপক ডাঃ এস এম ফজলুর রহমান বলেন, “কমরেড মিহির ঘোষ গাইবান্ধার গণমানুষের নেতা। গাইবান্ধার মানুষের সুখ দুঃখে সর্বদা কমরেড মিহির ঘোষ পাশে থেকেছেন।
ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন ধরে কমরেড মিহির ঘোষ সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দের নামে দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা অবিলম্বে প্রত্যাহার করতে হবে। একই সাথে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল করে মানুষের বাকস্বাধীনতা নিশ্চিত করতে হবে।যদি অবিলম্বে আমাদের দাবি মেনে নেয়া না হয় তবে দেশব্যাপী গণআন্দোলন গড়ে তুলে কমরেড মিহির ঘোষসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দের মুক্তি নিশ্চিত এবং গণবিরোধী ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের জন্য বাধ্য করা হবে।”

সমাবেশ শেষে একটি মশাল মিছিল পুরানা পল্টন মোড় থেকে শুরু হয়ে গুলিস্তান জিরো পয়েন্ট, ফুলবাড়িয়া, গুলিস্তান স্টেডিয়াম এলাকা, বায়তুল মোকাররম মার্কেট ঘুরে পুনরায় পুরানা পল্টন মোড়ে এসে শেষ হয়।

শেয়ার করুন

সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত

Leave a Comment

Your email address will not be published.

আইপিনিউজের সকল তথ্য পেতে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন