সোশ্যাল মিডিয়া আইপিনিউজ-

রংপুরে আদিবাসী হামলার বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ: স্মারকলিপি গ্রহণে ইউএনওর অনীহা

সূভাষ চন্দ্র হেমব্রম, রংপুর থেকে ফিরে: রংপুর জেলার পীরগঞ্জের উপজেলা বড়পাহাড়পুর গ্রামের আদিবাসী দিনমজুর নিরঞ্জন কুজুরের উপর জঘন্যতম হামলা, অপহরণের হুমকিদাতাদের দ্রুত গ্রেফতার ও বিচার, আহত পরিবারকে উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ এবং নিরাপত্তার দাবিতে জাতীয় আদিবাসী পরিষদ পীরগঞ্জ উপজেলা কমিটির উদ্যোগে গতকাল ৩১ আগস্ট ২০২২ বুধবার বেলা ১২টায় পীরগঞ্জের গুলশান মোড়ে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। মানববন্ধনের পূর্বে পীরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিরোদা রানী রায় বরাবর একটি স্মারকলিপি দেওয়া হলে তা গ্রহণে অনীহা জানিয়ে বলেন আদিবাসীদের এই ঘটনার  ব্যাপারে আমাদের তৎপরতা চলমান আছে, আপনারা স্মারকলিপির বদলে আবেদনপত্র গ্রহণ করেন।  পরবর্তীতে আবেদনপত্র প্রদান করতে বাধ্য হন আদিবাসী নেতৃবৃন্দ।

সমাবেশে  উপজেলা নির্বাহী অফিসারের স্মারকলিপি গ্রহণে অনীহার তিব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বক্তারা বলেন,   আদিবাসী দিনমজুর নিরঞ্জন কুজুরের উপর আক্রমণকারী দুষ্কৃতকারীদের যারা এখনও গ্রেফতার হয়নি তাদের দ্রুত গ্রেফতার করে বিচারের আওতায় আনতে হবে।  আহত নিরঞ্জন কুজুরের পরিবারকে উপযুক্ত ক্ষতিপূরণের ব্যবস্থা ও নিরাপত্তারও দাবি জানান বক্তারা।

বিক্ষোভ সমাবেশ পরিচালনা করেন পীরগঞ্জ উপজেলা সাধারণ সম্পাদক যোসেফ সরেন।

জাতীয় আদিবাসী পরিষদ পীরগঞ্জ উপজেলা কমিটির সভাপতি আগষ্টিন মিনজির সভাপতিত্বে মানববন্ধন সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জাতীয় আদিবাসী পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি রবীন্দ্রনাথ সরেন, সাংগঠনিক সম্পাদক বিমল রাজোয়াড়, রাজশাহী বিভাগীয় সম্পাদক নরেন চন্দ্র পাহান, দপ্তর সম্পাদক সূভাষ চন্দ্র হেমব্রম, কেন্দ্রীয় সদস্য বিভূতী ভূষণ মাহাতো, রংপুর জেলার আহ্বায়ক বিমল খালকো, গাইবান্ধা জেলা সভাপতি ডা. ফিলিমন বাসকে, আদিবাসী ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি নকুল পাহান, সাধারণ সম্পাদক তরুন মুন্ডা প্রমূখ। সংহতি বক্তব্য রাখেন জাতীয় আদিবাসী পরিষদের উপদেষ্টা অশোক সরকার, বাসদ রংপুর জেলা সমন্বয়ক আব্দুল কুদ্দুস প্রমূখ।

উল্লেখ্য, গত ০৭ আগস্ট ২০২২ তারিখে পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে পীরগঞ্জ উপজেলার বড় পাহাড়পুর গ্রামের আদিবাসী ওরাঁও জাতিসত্তার দিনমজুর নিরঞ্জন কুজুর (৪৫) একই গ্রামের বাবলু মিয়ার নিকট পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে মোঃ বাবলু মিয়া, মোঃ লাবলু মিয়া, মোঃ দুদু মিয়া ও মোঃ জরিনা বেগম কর্তৃক কুপিয়ে পা বিচ্ছিন্নপ্রায় মারাত্মক হামলার শিকার হয়। গত ২৭ আগস্ট ২০২২ শনিবার রাত আনুমানিক ১টায় নিরঞ্জন কুজুরের তিন মেয়েকে অপহরণের উদ্দেশ্যে রাতের অন্ধকারে বাড়িতে ঢুকে হামলা চালায়। আসামীরা বিভিন্নভাবে হুমকি-ধামকি দিয়ে অসেছে এবং এখনো দিচ্ছে। বর্তমানে নিরঞ্জন কুজুর ও তাঁর পরিবার চরম নিরাপত্তাহীনতা ও উৎকণ্ঠায় দিন কাটাচ্ছে।

মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ কর্মসূচি শেষে জাতীয় আদিবাসী পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির প্রতিনিধি দল রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার বড়পাহাড়পুর গ্রাম পরিদর্শন এবং আদিবাসী দিন মজুর নিরঞ্জন কুজুর দেখতে ও পরিবারসাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। উক্ত সময় বড়পাহাড়পুর গ্রামের সকল আদিবাসী জনগণ উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন

সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত

Leave a Comment

Your email address will not be published.

আইপিনিউজের সকল তথ্য পেতে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন