আঞ্চলিক সংবাদ

বিরলে আদিবাসী সম্প্রদায়ের উপর সন্ত্রাসী হামলায় প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

দিনাজপুরের বিরলে আদিবাসী কড়া সম্প্রদায়ের উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে বৃহস্প্রতিবার সকাল ১১ টায় বিরল প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন কড়া সম্প্রদায়ের পক্ষে কৃষ্ণ কড়া।

তিনি তার লিখিত বক্তব্যে বলেন, গত ৬ মার্চ বুধবার সকাল ১১ টায় উপজেলার রানীপুকুর ইউনিয়নের হালজায় গ্রামের ঝিনাইকুড়িতে কড়া সম্প্রদায়ের উপর একই এলাকার ভুমি দস্যু ও প্রভাবশালী সন্ত্রাসী বাহিনীর সদস্য মৃত: আব্দুল হান্নানের পুত্র আব্দুল্লাহ আল কাফী, কামরুজ্জামান, কিবরিয়া ও মৃত: মারফত আলীর পুত্র আব্দুল মান্নানসহ প্রায় ৪০-৫০ জনের একটি সংঘবদ্ধ সন্ত্রাসীদল ধারালো অস্ত্র ও লাঠিসহ কড়া সম্প্রদায়ের বসত বাড়ী ভাংচুর এবং তাদের লোক জনের উপর হামলা চালায়।

বিজ্ঞাপণ

এতে কড়া সম্প্রদায়ের বাড়ী ঘড়ের ব্যাপক ক্ষতিসহ গুরুত্বর আহত হয় সাতোল কড়া, কেদু কড়া, কোলোকড়া, মিরণ কড়া ও মালন কড়া। তাদেরকে গুরুতর অবস্থায় বিরল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে তাদের অবস্থা আশংকাজনক।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বাংলাদেশের এক মাত্র কড়া সম্প্রদায় বিরলের ঝিনাইকুড়িতে দীর্ঘ দিন যাবত বসবাস করে আসছেন এবং বাব-দাদার বসত ভিটা ও আবাদি জমি ভোগ দখল করে আসছিলেন। কিন্তু দুঃখ জনক হলেও সত্য যে বেশ কিছুদিন ধরে একই এলাকার ঐ সকল ভুমি দস্যু ও সন্ত্রাসী বাহিনীর লোক জনেরা বিলুপ্ত প্রায় কড়া সম্প্রদায়ের এসকল সদস্যদেরকে এলাকা ছাড়া করতে তাদের বাড়ী-ঘর ও আবাদি জমিতে জোড় করে দখল পুর্বক বাড়ী ঘর নির্মান করার পায়তারা চালিয়ে আসছেন।
এ ব্যপারে কড়া সম্প্রদায়ের লোকেরা সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে একাধিকবার বিরল থানায় অভিযোগ ও মামলা দায়ের করলেও থানা পুলিশ সন্ত্রসীদের বিরুদ্ধে তেমন কোন পদক্ষেপ গ্রহন করেনি। বিধায় একের পর এক ঘটনা ঘটেই চলছে।

বিলুপ্ত প্রায় কড়া সম্প্রদায়ের অসহায় লোকেরা এ ব্যাপারে প্রধান মন্ত্রী, স্থানীয় প্রতিমন্ত্রি খালিদ মাহমুদ চৌধুরী ও পুলিশের উর্ধতন কর্তৃপক্ষের শুভদৃষ্টি কামনা করেছেন।

বিজ্ঞাপণ

Back to top button