জাতীয়

বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধের আদর্শিক চরিত্রকে হারিয়ে ফেলছেঃ ঐক্য পরিষদ

সংবিধানে রাষ্ট্রধর্মের সংযোজনের মধ্য দিয়ে কার্যতঃ-ই মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে বিসর্জিত করা হয়েছে। পঞ্চদশ সংশোধনীর মধ্য দিয়ে ‘ধর্মনিরপেক্ষতা’ রাষ্ট্রীয় অন্যতম মৌলনীতি হিসেবে সংবিধানে পুণঃস্থাপিত হলেও প্রকৃতপক্ষে বাংলাদেশ তার মুক্তিযুদ্ধের আদর্শিক চরিত্রটাকে-ই হারিয়ে ফেলছে।

কালো দিবস পালনকল্পে আজ (১৩ জুলাই ২০১৯) সংগঠন কার্যালয়ে আয়োজিত বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের আলোচনাসভায় বক্তারা এ মর্মে অভিমত ব্যক্ত করেন।

বিজ্ঞাপণ

তাঁরা বলেন, ধর্ম হচ্ছে প্রতিটি মানুষের ব্যক্তিগত বিশ^াসের বিষয়। কিন্তু একে ব্যক্তিস্বার্থে, গোষ্ঠীস্বার্থে রাষ্ট্র ও রাজনীতিতে টেনে আনার ফলে বাংলাদেশ, ভারতসহ বিশে^র নানান দেশে সাম্প্রদায়িক সহিংসতা-য় শুধু বৃদ্ধি পাচ্ছে না, মানবিক বিপর্যয়ও এতে ঘটে চলেছে। এ থেকে উত্তরণে ঐক্যবদ্ধ গণজাগরণ গড়ে তোলা সময়ের বিবেচনায় অপরিহার্য বলে বক্তারা উল্লেখ করেন।

আলোচনাসভায় সভাপতিত্ব করেন ড. নিমচন্দ্র ভৌমিক। আলোচনায় অংশ নেন এ্যাড. রাণা দাশগুপ্ত, নৌ-কমান্ড অনিল বরণ রায়, কাজল দেবনাথ, এ্যড. পরিমল গুহ, এ্যাড. অজয় চক্রবর্তী, জে এল ভৌমিক, ভিক্ষু সুনন্দপ্রিয়, জয়ন্তী রায়, প্রিয়তোষ আচার্য শিবু, হীরা কুন্ডু, বলরাম বাহাদুর, মতিলাল রায়, এ্যাড. কিশোর মন্ডল, পদ্মাবতী দেবী, উত্তম চক্রবর্তী, সাগর হালদার, রাহুল বড়–য়া, নারায়ন সাহা অপু, বিধান দাশগুপ্ত প্রমুখ।

১৯৮৮ সালের ২০ জুন সংবিধানে রাষ্ট্রধর্ম সংযোজিত হয়। এ দিনটিকে ঐক্য পরিষদ প্রতি বছর কালো দিবস হিসেবে পালন করে আসছে। এ বছর ২০ জুন পবিত্র ঈদ-উল ফিতর থাকায় এ উপলক্ষে আলোচনা অনুষ্ঠান আজ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বিজ্ঞাপণ

Back to top button