শিল্প ও সংস্কৃতি

নেদারল্যান্ডের প্রিন্স ক্লস সীড এওয়ার্ড-২০২২ লাভ করেছেন তরুণ নির্মাতা এডিট দেওয়ান

নেদারল্যান্ডের প্রিন্স ক্লস ফান্ডের সীড এওয়ার্ড ২০২২

এর জন্য মনোনীত হয়েছেন এই তরুণ নির্মাতা।

সতেজ চাকমা, বিশেষ প্রতিবেদক, আইপিনিউজ: বাংলাদেশের পার্বত্য চট্টগ্রামের তরুণ নির্মাতা এডিট দেওয়ান নেদারল্যান্ডের প্রিন্স ক্লস ফান্ডের  (Prince Claus Fund)  প্রিন্স ক্লস সীড এওয়ার্ড  ২০২২ অর্জন করেছেন। এই পুরষ্কার পাওয়া পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের ১০০ জন নির্মাতাদের মধ্যে তিনি অন্যতম। যদিও প্রিন্স ক্লস ফান্ডের ওয়েবসাইটে  তাঁর নির্মিত ‘বিজু ইন সিটি’ ডকুমেন্টারির পোস্টারটি প্রদর্শিত হলেও মূলত তাঁর নির্মিত এযাবৎকালের চলচ্চিত্র, ডকুমেন্টারি  ও ‘পার্বত্য চলচ্চিত্র উৎসব’ এ  অবদান রাখায়  ‘আর্টিসটিক রিসার্চ ফিল্ম’ বিভাগের ‘আদিবাসী অধিকার’ ক্যাটাগরিতে এই পুরষ্কারের জন্য মনোনীত হন বলে আইপিনিউজকে নিশ্চিত করেছেন এই তরুণ নির্মাতা।

তাঁর বেশ কিছু নির্মাণের মধ্যে ‘বিজু ইন সিটি’ ডকুমেন্টারিটি একটি।  পার্বত্য চট্টগ্রামের চাকমা আদিবাসীদের প্রধান সামাজিক উৎসব ‘বিজু’। এই বিজুকে ঘিরে নানাভাবে মেতে উঠে পাহাড়ী জনপদ। কিন্তু পাহাড় থেকে অনেক দূরে ঢাকা শহরে কেমন ‘বিজু’ উৎযাপিত হয় তার নানা দিক   উক্ত ডকুমেন্টারি’তে তুলে ধরেছেন এডিট দেওয়ান । ‘বিজু ইন সিটি’ ছাড়াও তাঁর নির্মিত অন্যান্য কাজগুলোর মধ্যে অন্যতম হল-  ‘ড্রিম অর রিয়েলিটি’। উক্ত ডকুমেন্টারিতে এডিট দেওয়ান পার্বত্য চট্টগ্রামের তরুণদের স্বপ্নের সাথে তার শেকড়ের নির্মম বাস্তবতার যে ফারাক সেটাকে চিত্রিত করেছেন। এদিকে  ‘ক্লেইম অব টু রুমস’ নামের আরেকটি ডকুমেন্টারিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া জুম্ম শিক্ষার্থীদের  নিজেদের অধিকারের জন্য নানা ভাবনা, চিন্তার প্রতিফলন ঘটিয়েছেন তিনি।  এছাড়া অরেকজন নির্মাতা তুরিন তঞ্চঙ্গ্যার সাথে নির্মাণ করা ‘ফেলিম:সিনেমা ফর আইডেনটিটি’ নামের আরেকটি চলচ্চিত্রও আছে তাঁর। মূলত তাঁর কাজগুলো পার্বত্য চট্টগ্রাম এবং সেখানে বসবাসরত আদিবাসী জীবন, সংগ্রাম ও জীবনাচরণের নানা দিক নিয়ে চিত্রিত।

বিজ্ঞাপণ

২০১৪ সাল থেকে পার্বত্য চলচ্চিত্র উৎসব এর আয়োজন করছেন তরুণ নির্মাতা এডিট দেওয়ান। এই উৎসব আয়োজনে তিনি ছাড়াও সহ-আয়োজক হিসাবে কাজ করছেন প্রমোদ চাকমা ও তুরিন তঞ্চঙ্গ্যা। এছাড়া উক্ত উৎসবে তাঁদের সাথে অন্যতম সহযোগী হিসেবে কাজ করেছেন তরুণ আদিবাসী অধিকার কর্মী ও বর্তমানে নালন্দা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সুলভ চাকমা।

এদিকে চলচ্চিত্র  নির্মাতা এডিট দেওয়ান তাঁর এই পুরষ্কার প্রাপ্তি নিয়ে নিজস্ব ফেসবুক ওয়ালে লিখেছেন,  আমি খুশি যে, নেদারল্যান্ডস এর প্রিন্স ক্লস ফান্ড আমাকে সীড এওয়ার্ড ২০২২ এর জন্য মনোনীত করেছে। আমি তাদের প্রতি কৃতজ্ঞ এবং আশা রাখি এই অ্যাওয়ার্ড আমার চলচ্চিত্র নির্মাণ এবং শিল্পী জীবনকে বেড়ে উঠতে সহযোগিতা করবে।

বিজ্ঞাপণ

আইপিনিউজকে এডিট দেওয়ান বলেন,  আগামীতে আমার কাজগুলো আরো এগিয়ে নিতে এই এওয়ার্ডটি অনুপ্রেরণা যোগাবে।

তরুণ চলচ্চিত্র নির্মাতা এডিট দেওয়ানের জন্ম রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলার জুরাছড়ি উপজেলায়। তিনি ২০১১-১২ সেশনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগে ভর্তি হন এবং উক্ত বিভাগ থেকে বিএসি ও এমসি সম্পন্ন করেন। পরে ভারত সরকারের বৃত্তি নিয়ে ভারতের যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ফ্লিল্ম স্টাডিজ নিয়ে মাস্টার্স সম্পন্ন করেন। এর আগে ২০১৪ সালে প্রথম রাঙ্গামাটিতে ‘হিল ফিল্ম ফেস্টিভল’ এর আয়োজন করে। ইতিমধ্যে এই উৎসবটির নানা পর্ব সম্পন্ন হয়েছে। মূলত পার্বত্য চট্টগ্রামের আদিবাসী ভাষার চলচ্চিত্রের প্রচার ও প্রসারে এই উৎসব এর আয়োজন বলেও জানান তিনি। এছাড়া এডিট দেওয়ান পাহাড় থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া জুম্ম শিক্ষার্থীদের সাংস্কৃতিক সং‘গঠন   ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় জুম সাহিত্য ও সাংস্কতিক সংসদ এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি। এই সংগঠনটি ২০১৭ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় যেটি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পসে টিএসসি ভিত্তিক নানা ধরণের সৃজনশীল সাংস্কৃতিক কর্মসূচী নিয়ে কাজ করছে। এদিকে তাঁর চলমান আরো অনেক কাজ শীঘ্রই প্রকাশিত হবে বলেও আইপিনিউজকে জানান তিনি।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

Adblock Detected

Please Disable Your Ad Blocker.