আঞ্চলিক সংবাদ

চবিতে নবীন আদিবাসী শিক্ষার্থীদের পরিচিতমূলক গেট টুগেদার অনুষ্ঠিত

আইপিনিউজ ডেক্স(ঢাকা): চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে ভর্তিকৃত নবীন আদিবাসী শিক্ষার্থীদের আয়োজনে পরিচিতিমূলক গেট টুগেদার অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। গতকাল বুধবার বিকাল ৪ টা ঘটিকায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের জাদুঘর প্রাঙ্গনে এই গেট টুগেদারের আয়োজন অনুষ্ঠিত হয়।
উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সমাজতত্ত্ব বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মাইদুল ইসলাম এবং সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সমাজতত্ত্ব বিভাগের সহকারী অধ্যাপক বসুমিত্র চাকমা। এছাড়াও বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইংরেজি বিভাগের মেধাবী শিক্ষার্থী এঞ্জেলা আকাঙ্খা থিগিদী, ব্যাংকিং এন্ড ইন্সুইরেন্স বিভাগের শিক্ষার্থী মংসানু রাখাইন, পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সহ-সাধারণ সম্পাদক রিপন চাকমা, বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় সংসদের সাংগঠনিক সম্পাদক প্রত্যয় নাফাক, রঁদেভূ শিল্পীগোষ্ঠীর সাবেক সভাপতি ধর্মরাজ তঞ্চঙ্গ্যা, ত্রিপুরা স্টুডেন্টস ফোরাম চট্টগ্রাম মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক গুনেন ত্রিপুরা, রঁদেভূ শিল্পীগোষ্ঠীর সহ-সভাপতি অম্লান চাকমা, রাখাইন স্টুডেন্টস এ্যাসোসিয়েশন চবির প্রতিনিধি ওয়াংনাই রাখাইন, পহর জাঙাল প্রকাশনা পর্ষদের সম্পাদক সজীব তালুকদার প্রমূখ।

অনুষ্ঠানে আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের শিক্ষার্থী লোকেশ চাকমা ও নৃবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী মনীষা তঞ্চঙ্গ্যার সঞ্চালনায় সভাপতিত্ব করেন গেট টুগেদার আয়োজক কমিটির আহ্বায়ক ও স্পোর্টস সায়েন্স বিভাগের শিক্ষার্থী শান্তশীল চাকমা। অনুষ্ঠানের শুরুতে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের নবীন আদিবাসী শিক্ষার্থীদের পরিচিত পর্ব অনুষ্ঠিত হয় এবং প্রধান অতিথির মাধ্যমে নবীন শিক্ষার্থীদের ফুল দিয়ে বরণ করা হয়। অনুষ্ঠানে নবীন শিক্ষার্থীদের পক্ষে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন মেরিন সায়েন্স বিভাগের শিক্ষার্থী অনুপ মাহাতো এবং পালি বিভাগের শিক্ষার্থী ক্যানুমং তঞ্চঙ্গ্যা।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন চবি’র সমাজতত্ত্ব বিভাগের সহকারী অধ্যাপক বসুমিত্র চাকমা। আয়োজনে উপস্থিত ছিলেন একই বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মাইদুল ইসলাম ।

সম্মানিত অতিথির বক্তব্যে সহকারী অধ্যাপক বসুমিত্র চাকমা বলেন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রতি বছর একশ এর বেশি আদিবাসী শিক্ষার্থী ভর্তি হয়। তোমাদের লক্ষ্য থাকতে হবে বিশ্ববিদ্যালয়ে ৫-৬ বছর পড়াশোনা করার পর ভবিষ্যতে যেন সুদক্ষ, মেধাবী এবং নানা গুণের অধিকারী হয়ে বের হতে পারো। নানা সমস্যা ও নানা প্রতিকূলতা অতিক্রম করে বিশ্ববিদ্যালয়ে পৌঁছাতে হয়। সেসব সমস্যাগুলো কাটিয়ে আমরা যেন এক একজন মিসাইলের মত হয়ে উঠতে পারি। তিনি আরও বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষাজীবন শেষ করে যেন সবাই সমাজ পরিবর্তনে কাজে ভূমিকা রাখতে পারি। প্রতিবছর চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে যেন স্কলারশিপ নিয়ে উচ্চতর শিক্ষা লাভের জন্য আদিবাসী শিক্ষার্থীরা যোগ্যতা অর্জন করতে পারে তিনি সেই আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

বিজ্ঞাপণ

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মাইদুল ইসলাম বলেন, একজন শিক্ষার্থী হিসেবে তোমাদের নিজস্ব স্বপ্ন থাকবে আর সেই স্বপ্নকে পূরণের জন্য নিজের জ্ঞান আহরণের পথকে আরও প্রসারিত করবে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের উচ্চশিক্ষা লাভের জন্য সচেষ্ট থাকবে যাতে জ্ঞানলাভ করে নিজের দেশের ও সমাজের জন্য কাজে লাগানো সম্ভব হয়।
তিনি পাওলো কোয়েলোর বিখ্যাত বই আলকেমিস্ট, দ্যা ওল্ড ম্যান সি সহ প্রভৃতি বইয়ের গল্প তুলে ধরার মাধ্যমে নবীন শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন দিকনির্দেশনামূলক উপদেশ প্রদান করেন।

এছাড়াও অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন ধর্মরাজ তঞ্চঙ্গ্যা, সজীব তালুকদার,অম্লান চাকমা, প্রত্যয় নাফাক, রিপন চাকমা, ইংরেজি বিভাগের মেধাবী শিক্ষার্থী এঞ্জেলা আকাঙ্খা থিগিদী, ব্যাংকিং এন্ড ইন্সুইরেন্স বিভাগের শিক্ষার্থী মংসানু রাখাইন, ত্রিপুরা স্টুডেন্টস ফোরাম চট্টগ্রাম মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক গুনেন ত্রিপুরা, রাখাইন স্টুডেন্টস এ্যাসোসিয়েশন চবির প্রতিনিধি ওয়াংনাই রাখাইন প্রমূখ বক্তব্য রাখেন।
অনুষ্ঠানের সভাপতি শান্তশীল চাকমার সমাপনী বক্তব্যের মাধ্যমে গেট টুগেদার অনুষ্ঠানটি সমাপ্ত হয়।পরিচিতিমূলক গেট টুগেদার অনুষ্ঠানটিতে প্রায় ৭৫ জনের অধিক নবীন আদিবাসী শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য যে, প্রত্যেক বছর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সার্বিক সহযোগিতায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়া নবীন আদিবাসী শিক্ষার্থীদের পরিচিতমূলক গেট টুগেদার অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়।

বিজ্ঞাপণ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

Adblock Detected

Please Disable Your Ad Blocker.