আঞ্চলিক সংবাদ

চট্টগ্রামে জনসংহতি সমিতির সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত

চট্টগ্রাম প্রতিনিধিঃ ২৪ জুন ২০১৬, চট্টগ্রামে পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ,পাহাড়ী শ্রমিক কল্যাণ ফোরাম, হিল উইমেন্স ফেডারেশন এবং আদিবাসী ফোরাম এর সাংগঠনিক ও রাজনৈতিক কার্যক্রম, সমস্যা ও সম্ভাবনা এবং ভবিষ্যৎ করণীয় শীর্ষক এক সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়। জনসংহতি সমিতি, চট্টগ্রাম অঞ্চলের সমন্বয়ক- শরৎ জ্যোতি চাকমার সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনসংহতি সমিতির সাধারণ সম্পাদক প্রণতি বিকাশ চাকমা। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সমিতির সাংগঠনিক সম্পাদক শক্তিপদ ত্রিপুরা, আদবাসী ফোরাম পার্বত্য অঞ্চলের সাধারণ সম্পাদক ইন্টু মনি তালুকদার, পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ সভাপতি বাচ্চু চাকমা, হিল উইমেন্স ফেডারেশনের সভাপতি চঞ্চনা চাকমা।
চট্টগ্রামের স্টুডিও থিয়েটার হলে অনুষ্ঠিত সমন্বয় সভায় আদিবাসী ফোরাম চট্টগ্রাম অঞ্চল ফটিকছড়ি,মিরসরাই, হাটাজারি ও সিতাকুন্ডের নেতৃবৃন্দ,পাহাড়ী শ্রমিক কল্যাণ ফোরামের বিভিন্ন শাখার নেতৃবৃন্দ এবং ছাত্র পরিষদের চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়, ,চট্টগ্রাম মহানগরসহ অন্যান্য শাখার নেতৃবৃন্দ বক্তব্য প্রদান করেন। দিন ব্যাপী অনুষ্ঠিত সমন্বয় সভায় বক্তারা জনসংহতি সমিতির নেতৃত্বে বঞ্চিত মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার চলমান আন্দোলনে নিবেদিত প্রাণ হয়ে কাজ করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন। সিতাকুন্ড,মিরসরাই, হাটাজারি এবং ফটিকছড়ির প্রতিনিধিরা আদিবাসীদের ভূমি সমস্যার কথা উল্লেখ করে বলেন, ভূমির সাথে আদিবাসীদের আত্মার সর্ম্পক থাকলেও কালের বিবর্তনে আজ সেখানকার মানুষ ভূমি হারা। আদিবাসীরা নিজ দেশে পরবাসী। লড়াই সংগ্রাম ছাড়া এই দেশে ঠিকে থাকা সম্ভব নয়।
প্রধান অতিথি প্রণতি বিকাশ চাকমা তরুণদের উদ্দেশ্যে বলেন ,জনসংহতি সমিতি দেশের আদিবাসীসহ পিছিয়ে পড়া মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে। শাসক গোষ্ঠী এমনিতেই অধিকার দেবেনা। তিনি আরো বলেন, শাসকগোষ্ঠীর এই দমন পীড়নের বিরুদ্ধে আত্মবলিদানে নির্ভীক হয়ে আদিবাসী তরুণদের সংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পড়তে না পারলে পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তি বাস্তবায়িত হবেনা, আদিবাসীদের সাংবিধানিক স্বীকৃতি ও ভূমি অধিকার প্রতিষ্ঠা করা যাবেনা। জনসংহতি সমিতির সাংগঠনিক সম্পাদক শক্তিপদ ত্রিপুরা বলেন, আদিবাসী তরুণ সমাজকে মানবেন্দ্র নারায়ণ লারমা প্রদর্শিত প্রগতিশীল চিন্তা ধারায় একত্রিত হতে হবে। কর্মীদের মধ্যে পারষ্পরিক সুসর্ম্পক রাখতে হবে। সমালোচনা ও আত্মসমালোচনার মাধ্যমে আত্মশুদ্ধি হয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে সংগ্রামে আসতে হবে।

বিজ্ঞাপণ

Back to top button