জাতীয়

উন্নয়নের মহাসড়কের নীচে চাপা পড়ছে আদিবাসী মানুষের হাহাকার-আহাজারি: ছাত্র-যুব নেতৃবৃন্দ

আগামী ৯ই আগস্ট আসন্ন আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবসকে সামনে রেখে অনলাইন সংবাদ মাধ্যম আইপিনিউজ এর উদ্যোগে আজ ৭ই আগস্ট,২০২১ ইং দেশের বিভিন্ন ছাত্র ও যুব সংগঠনের বর্তমান ও সাবেক নেতৃবৃন্দের অংশগ্রহণে “ছাত্র ও যুব ভাবনা” শীর্ষক এক অনলাইন আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সাবেক ছাত্রনেতা এবং পরিবেশ বার্তা-র সম্পাদক ফেরদৌস আহমেদ উজ্জ¦ল এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত অনলাইন আলোচনায় উপস্থিত ছিলেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ^বিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞানের শিক্ষক রেজোয়ানা করিম স্নিগ্ধা, বাংলাদেশ যুব মৈত্রী-র সভাপতি সাব্বাহ আলী খান কলিন্স, ছাত্র ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি মানবেন্দ্র দেব, সাংবাদিক গোলাম মর্তুজা, সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের সভাপতি নাসিরউদ্দিন প্রিন্স, ছাত্র ইউনিয়নের সাংগঠনিক সম্পাদক সুমাইয়া সেতু এবং বাংলাদেশ আদিবাসী ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি সুলভ চাকমা প্রমুখ।

অনলাইন আলোচনায় জাহাঙ্গীরনগর বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষক রেজোয়ানা করিম স্নিগ্ধা বলেন, বিশ^ব্যাপী আদিবাসীরা যা চেয়েছে তা হচ্ছে তাদের এলাকায় যেন পুজির অবাধ প্রবেশ না ঘটে, তাদের প্রকৃতি যেন অক্ষত থাকে। পুজিপতিরা ভূমির উপর দখলদারিত্ব কায়েম করতে চায়। কিন্তু কার ভূমির উপর? দেখা যায় অধিকাংশ ক্ষেত্রেই আদিবাসীদের ভূমি বেদখল করা হয়। আমরা ভারত বা পাকিস্তানের মত ধর্মীয় পরিচয়ের ভিত্তিতে স্বাধীনতা অর্জন করি নি। আমাদের স্বাধীনতা সংগ্রামের অন্যতম উৎস ভাষা আন্দোলন। এখন আন্তর্জাতিকভাবেও মাতৃভাষা দিবস উদযাপন করা হয়। কিন্তু আজকে আমি যদি দেখি এদেশের আদিবাসীদের ভাষার দিকে, তাদের সংস্কৃতির দিকে তাহলে আমাদের বলতে হয় দু:খজনক হলেও তা যথার্থভাবে সংরক্ষণ ও চর্চার সুযোগ তৈরী হচ্ছে না। আমরা কিন্তু তাদের উপর আমাদের ভাষা-সংস্কৃতিকে চাপিয়ে দিতে পারি না। আদিবাসীদের সাথে নিয়েই, বৈচিত্রকে সাথে নিয়েই এগিয়ে যেতে হবে।

বিজ্ঞাপণ

বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের সাংগঠনিক সম্পাদক সুমাইয়া সেতু বলেন- আজ এমন সময়ে আমরা আদিবাসী দিবস নিয়ে আলোচনা করছি যখন আমাদের বলতে হচ্ছে কল্পনা চাকমা কোথায় বা আমরা দেখতে পাচ্ছি ¤্রাে-জনগণের ভূমিতে পাঁচতারকা হোটেল অথবা আমরা দেখছি কোন এক আদিবাসী মেয়ে ধর্ষণের শিকার। আজকে অবকাঠামোগত উন্নয়নের নামে আদিবাসী এলাকায় রাস্তা হয়, পর্যটন হয়, ইকোপার্ক হয় কিন্তু সেখানকার জনগণের কোন প্রকৃত উন্নয়ন আমরা দেখতে পাই না।

বাংলাদেশ আদিবাসী ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি সুলভ চাকমা বলেন- সংবিধানে আদিবাসীদের স্বীকৃতি নেই, বহুত্বের স্বীকৃতি নেই, বৈচিত্রের স্বীকৃতি নেই। আজকে আমরা উন্নয়নের কথা বলছি। উন্নয়নের মহাসড়ক আজ সাজেক, আলীকদম পর্যন্ত চলে গেছে। কিন্তু উন্নয়নের মহাসড়কের ডানপাশে দেখা যায় মানুষ দেশান্তরী হচ্ছে, বামপাশে দেখা যায় ¤্রাে শিশু ডায়রিয়ায় মারা যাচ্ছে। উন্নয়নের ধাক্কায় আদিবাসীরা আজ তাদের চিরায়ত ভূমি থেকে উচ্ছেদ হচ্ছে।

বাংলাদেশ যুব মৈত্রীর সভাপতি সাব্বাহ আলী খান কলিন্স বলেন, আজকে যারা আদিবাসীদের বিভিন্ন সংগ্রামে যুক্ত আছেন, আদিবাসী সংগঠনগুলোর নেতৃত্বে আছেন, তারা যদি মূলধারার রাজনৈতিক সংগ্রামেও অধিকতর ভাবে সম্পৃক্ত হওয়ার প্রচেষ্টা রাখেন তবে সেটা আদিবাসী আন্দোলন বা মূলধারার আন্দোলন উভয়কেই সমৃদ্ধ করবে। সেজন্য আদিবাসীদের যেমন এগিয়ে আসতে হবে। মূলধারার সাথে যারা যুক্ত আছেন তাদেরকেও এগিয়ে আসতে হবে।

বিজ্ঞাপণ

সাবেক ছাত্রনেতা মানবেন্দ্র দেব বলেন, আজকে কেন মূলধারার মানুষের সাথে প্রান্তিক আদিবাসীদের সম্পৃক্ত করা যাচ্ছে না। আমরাইতো তাদের বিচ্ছিন্ন করে রাখছি। আজকে উন্নয়নের নামে রাস্তা হচ্ছে। কিন্তু উন্নয়নের মহাসড়কের নামে যা চলছে তারা নীচে কত হাহাকার, কত মানুষের আহাজাড়ি সেটা তো খেয়াল রাখছি না।

সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের সভাপতি নাসিরউদ্দিন প্রিন্স বলেন, যে পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। চুক্তিতে অনেক কিছুই লেখা আছে। কিন্তু চুক্তির মৌলিক বিষয়গুলো বাস্তবায়িত হয় নি। আদিবাসীদের প্রথাগত ভূমি অধিকার নিশ্চিত হয় নি। পার্বত্য অঞ্চলে ভূমি কমিশন গঠন করা হয়েছে কিন্তু কার্যকর হয় নি। পার্বত্য চট্টগ্রামের মানুষের যে স্বশাসনের অধিকার সে অধিকার নিশ্চিত হয় নি। পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তি কীভাবে বাস্তবায়ন করা হবে তার কোন সুনির্দিষ্ট রোডম্যাপও নেই।

সাংবাদিক গোলাম মর্তুজা বলেন, সামগ্রিকভাবে আমি মনে করি আসলে আমাদের দেশটা সাধারণের কাছে নেই। কিছু মানুষের কাছেই রাষ্ট্র কুক্ষিগত হয়ে আছে। যাদের হাতে রাষ্ট্র রয়েছে তাদের মধ্যে লুঠেরা চরিত্র রয়েছে। পাহাড়ে আসলে কী হয় তা আমরা সবসময় জানি না। সেখানে শুকনো মৌসুমে পানির জন্য কী পরিমাণ কষ্ট করতে হয়। কিন্তু আমরা বলছি উন্নয়নের কথা। উন্নয়নের নামে আসলে লুঠপাঠই হয়। উন্নয়ন মানে তো অবকাঠামো নির্মাণ করা নয়।

অনলাইন আলোচনাসভাটি আইপিনিউজের ফেসবুক পেজ থেকে সরাসরি সম্প্রচার করা হয়। ফেসবুক লিংক- https://www.facebook.com/ipnewsbd/videos/520359275925798/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

Adblock Detected

Please Disable Your Ad Blocker.