অন্যান্য

অগ্নিদগ্ধ শিশু জবা চাকমা বাঁচতে চায়: মানবিক সাহায্যের আবেদন

সুমেধ চাকমা, ডেস্ক রিপোর্টার (আইপিনিউজ), বয়স তার খুব বেশি নয়৷ মাত্র আট বছর৷ কিন্তু মিষ্টি চেহারার জবা চাকমার দিন কাটছে এখন ঢাকার শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ণ ও প্লাষ্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের বিছানায়। গত শুক্রবার (২৭ জানুয়ারি) বন্ধুদের সাথে খেলতে গিয়ে অসাবধানতাবশতঃ গাঁয়ে আগুন লাগে তার। এতে তার শরীরের ২৮% পুড়ে গিয়েছে।

শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ণ ও প্লাষ্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের কর্তব্যরত চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, “জবা চাকমার শরীরের ২৮% পুড়ে গেছে। তার বর্তমান অবস্থা এখনো শঙ্কামুক্ত নয়। শিশুদের শরীরের ১০ শতাংশ পুড়ে গেলেই আমরা সেটাকে ঝুঁকিপূর্ণ ধরে চিকিৎসা দিয়ে থাকি।”

বিজ্ঞাপণ

জবার বাবা মেঘকালা চাকমা আইপিনিউজকে  বলেন, “তার বাড়ি রাঙামাটির সুবলং ইউনিয়নের নন্যাছড়া গ্রামে। গায়ে আগুন লাগার পর আমার মেয়েকে চট্রগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করি। কিন্তু অবস্থা খারাপ হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসকরা ঢাকার শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ণ ও প্লাষ্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে রেফার করেছেন। তাই গত রাতে তাকে ঢাকায় এনেছি।”

ঢাকার শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ণ ও প্লাষ্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের বিছানায় অগ্নিদগ্ধ জবা চাকমা

তার আত্মীয় জ্ঞান চাকমা বলেন, “গত শুক্রবার বন্ধুদের সাথে খেলতে গিয়ে অসাবধানতাবশতঃ গাঁয়ে আগুন লাগে। সেসময় তার বাবা-মা কেউ বাড়িতে ছিলো না। আগুন লাগার পর পরনের সোয়েটারটিতে খুলতে পারলেও গায়ের জামাটি খুলতে না পারায় সে মারাত্মকভাবে দগ্ধ হয়েছে। জবার বাবার আর্থিক অবস্থা খুবই খারাপ। আগুনে পোড়া রোগীর চিকিৎসা খুবই ব্যয় বহুল। অর্থ সংকটে চিকিৎসার ব্যয় নির্বাহ করতে হিমশিম খেতে হচ্ছে। মানবিকতার দৃষ্টিতে যতটুকু সম্ভব সাহায্য করলে তার চিকিৎসা চালিয়ে যেতে পারবো। আমি সমাজের মানবিক ও বিত্তশালীদের প্রতি অনুরোধ করবো আপনাদের সামান্য সহযোগিতায় হয়তো জবা বেঁচে যেতে পারে।”

সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা: রোগীর বাবার নম্বর: 01630875778, রোগীর মায়ের নম্বর: 01533247333, রোগীর আত্মীয়: জ্ঞান চাকমা 01552693844(বিকাশ/নগদ), 01585494226(বিকাশ/নগদ) ।

বিজ্ঞাপণ

 

 

Back to top button